Sheikh Hasina is coming to India - শেখ হাসিনা ভারতে আসছেন

Sheikh Hasina is coming to India - শেখ হাসিনা ভারতে  আসছেন

 

ভারত বাংলাদেশের সম্পর্ক  প্রথম থেকেই ভাল,তার ওপর আরও শান্তিনিকেতনে ‘বাংলাদেশ ভবন’-নের উদ্বোধন সম্পর্কের আরও উন্নতি ঘটবে। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই মাসের  ২৫ তারিখে শান্তিনিকেতনে আসছেন। বিশ্বভারতীতে ‘বাংলাদেশ ভবন’  উদ্বোধন করার কথা তাঁর হাত দিয়েই।  ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও উপস্থিত থাকতে পারেন এই অনুষ্ঠানে।
বৃহস্পতিবার বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সবুজকলি সেনের তরফ থেকে  ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রকে হাসিনার সফরের বিবরণের কথা  জানানো হয়েছে।সেই দিনই  বিশ্বভারতী  উপাচার্য বিদেশ মন্ত্রকের সঙ্গে বৈঠক শেষ করে বোলপুরে ফিরে আসেন। তবে আবস্য এর আগেই তিনি জানান,  “ আমরা আগেই ওই সময়ে সমাবর্তন অনুষ্ঠানটি করার প্রস্তুতি নিয়ে রেখে ছিলাম। “ উপাচার্য আরও বলেন, বিশ্বভারতীর আচার্যের তরফ থেকে প্রধানমন্ত্রীকেও আমন্ত্রণ জানান হয়েছে। এমনকি নরেন্দ্র মোদীও বিশ্বভারতীর ওই অনুষ্ঠানে  অংশ গ্রহণ করার জন্য খুবই আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

বিশ্বভারতী  উপাচার্য কে বাংলাদেশ হাইকমিশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, শেখ হাসিনা ২৪ তারিখে ভারতে আসবেন, এসে বর্ধমানের চুরুলিয়ায় কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের এক বিশেষ সাম্মানিক ডিগ্রি গ্রহণ করবেন, তারপরের দিন তিনি  শান্তিনিকেতনে যাবেন। আবস্য এরগেই বাংলাদেশের সংস্কৃতি মন্ত্রকের প্রতিনিধি দল মঙ্গলবার শান্তিনিকেতনে আসবে। বাংলাদেশ শান্তিনিকেতনে  ‘বাংলাদেশ ভবন’ টি ২৫ কোটি টাকা খরচ করে নির্মাণ করেছে। তবে এখনও আনুষ্ঠানিক ভাবে কেন্দ্র সরকার বা বাংলাদেশ সরকারের তরফ থেকে  শেখ হাসিনার  এই সফরের দিনক্ষণের ব্যাপারে রাজ্যকে সঠিক ভাবে কিছু জানানো হয়নি।
দুই রাষ্ট্র প্রধানের মধ্যে শেখ হাসিনাই ভারত সফরে এসে ছিলেন শেষ বার। তবে  বাংলাদেশের কূটনীতিকরা মনে করছেন, হাসিনার এই  সফর কে  কোন ভাবেই রাষ্ট্রীয় সফর বলা যায় না। এটি সম্পুন ভাবে একটি অনুষ্ঠানিক  সফর। পরপর কোনও দেশে পর পর দু’বার সফরে প্রোটোকলগত কোন বাঁধা নেই।
ভারতীয় কূটনীতিবীদরা মনে করছেন, শান্তিনিকেতনে  এই ‘বাংলাদেশ ভবন’ উদ্বোধন ভারত বাংলাদেশের সম্পর্কের আর উন্নতি ঘটাবে।